fbpx

বাংলাদেশের প্রথম ভিডিও নিউজ পোর্টাল

বুধবার, ৮ই এপ্রিল, ২০২০; ২৫শে চৈত্র, ১৪২৬; ১৩ই শাবান, ১৪৪১
হোম ক্রীড়া বিদায়ের শেষ জয়টা মালিঙ্গার কিন্তু তামিমের শুরুটা হার
বিদায়ের শেষ জয়টা মালিঙ্গার কিন্তু তামিমের শুরুটা হার

বিদায়ের শেষ জয়টা মালিঙ্গার কিন্তু তামিমের শুরুটা হার

9
0

বাংলাদেশ বনাম শ্রীলংকার ওয়ানডে সিরিজের গতকাল শুক্রবারের প্রথম ওয়ানডে ম্যাচটি ছিল ক্রিকেট ভক্তদের কাছে একটু বাড়তি আকর্ষন। কেননা একদিকে এটাই ছিল লাথিস মালিঙ্গার শেষ ওয়ানডে এবং এর মধ্য দিয়ে অবসরে যাওয়া। অন্যদিকে প্রথম অধিনায়কের দায়িত্ব পাওয়া তামিম ইকবালের অধিনায়কত্বের প্রমান দেখা।

তামিম ইকবালদের সেই জয়টা হয়নি ঠিকি কিন্তু মালিঙ্গার শেষ খেলার বিদায়ের জয়ের সাধটা ছিল চোখে পড়ার মত। আগেই ঘোষনা দিয়েছিলেন লাথিস মালিঙ্গা। কিংবদন্তিকে বিদায় জানাতে কানায় কানায় পূর্ণ ছিল কলম্বোর প্রেমাদাসা স্টেডিয়াম। অসাধারণ পারফরম্যান্সে তিনি ভরিয়ে দিয়েছেন সবার মন, বিদায়ী উপহার পেয়েছেন দর্শকদের কাছ থেকে বাঁধ ভাঙ্গা ভালোবাসা আর উচ্ছাসের মধ্য দিয়ে। মালিঙ্গা মানেই বোলিংয়ে বিধ্বংসী ও মারনাস্ত্র। তার প্রমানই যেন শেষ ম্যাচ দিয়ে আবারো দেখিয়ে দিলেন তিনি।
ইনিংসের প্রথম ওভারেই দুর্দান্ত ইয়র্কারে বোল্ড করেছেন তামিম ইকবালকে। তার আরেকটি অসাধারণ ইয়র্কারের কোনো জবাব পাননি সৌম্য সরকার। শেষ স্পেলে ফিরে আরেকটি উইকেট নিয়ে ইতি টেনেছেন নিজের ক্যারিয়ার ও ম্যাচের।
গত ম্যাচ খেলার আগ পর্যন্ত ঝাঁকড়া চুলের এই পেসারের রয়েছে নিজ দলের হয়ে অনেক অবদান। ৩৫ বছর বয়সী লাথিস মালিঙ্গা ২১৯টি ম্যাচে মোট ৩৩৫ উইকেট শিকার করেন। রয়েছে অসংখ্য রেকর্ড। যার মধ্যে তিনবার হেট্রিক, এক বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ ১২উইকেট, ওয়ানডেতে ৫নম্বর তালিকা ছাড়াও রয়েছে ছোট-বড় অনেক রেকর্ড।

কিন্তু অধিনায়কের দায়িত্ব পাওয়া তামিমের শুরুটা ভালো হয়নি। বাজে ফিল্ডিং এবং বোলারদের জন্য রানের সংখ্যা ৩শ ছাপিয়ে রীতিমত টাইগারদের হতাশ করেছে। ব্যাট হাতে তামিম ও সৌম্যকে মালিঙ্গার বিধ্ধংসী বোলিয়ে শুরুতেই ফিরিয়ে দিয়ে জয়ের স্বাধ থেকে বঞ্চিত রাখে তামিমদের। সবশেষ ৩১৪রান তাড়া করতে গিয়ে ৯১ রানে হারে বাংলাদেশ।খেলাটি দারুনভাবে উপভোগ করে গ্যালারীতে থাকা দর্শকরা। শেষ বিদায়ি ম্যাচটা মালিঙ্গার জীবনে হয়ে থাকলো স্বরনীয়। খেলা শেষে গ্যালারী ভর্তি দর্শকরা সম্মান দিয়ে বিদায় জানিয়েছিল তাকে।

ইনিংসের শুরুতে মাঠে নামার সময় তাকে ‘গার্ড অব অনার’ দিয়েছিল সতীর্থরা। ম্যাচ শেষে মাঠ ছাড়ার সময় একই সম্মান দিয়েছে প্রতিপক্ষ বাংলাদেশ।
সবকিছু মিলে লাথিস মালিঙ্গার শেষ ওয়ানডে ছিল আনন্দের এবং স্বরনীয়। অন্যদিকে প্রথম অধিনায়কের দায়িত্ব পাওয়া তামিমের জন্য শুরুটা ছিল খারাপ লাগার। তবে পরের ম্যাচটাতে ঘুরে দাঁড়াতে চান বলে এমনটাই প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন তামিম বাহিনী।

(9)

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry

LEAVE YOUR COMMENT

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।