fbpx

বাংলাদেশের প্রথম ভিডিও নিউজ পোর্টাল

সোমবার, ১৯শে অক্টোবর, ২০২০; ৪ঠা কার্তিক, ১৪২৭; ১লা রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২
হোম বিনোদন নাটকের গল্পটা আসল, তারপর পরিচালনা এবং অভিনয় : ঈশিতা
নাটকের গল্পটা আসল, তারপর পরিচালনা এবং অভিনয় : ঈশিতা

নাটকের গল্পটা আসল, তারপর পরিচালনা এবং অভিনয় : ঈশিতা

0

টেলিভিশন নাটকের অন্যতম দর্শকপ্রিয় অভিনেত্রী রুমানা রশিদ ঈশিতা। টিভি নাটকে তার পথচলা অনেক বছরের। বলতে গেলে একটি প্রজন্মের প্রতিনিধিত্ব করেছেন তিনি। অবশ্য আগের মতো এখন নাটক বেশি না করলেও মাঝে মাঝে কিছু কাজ করে আলোচনায় থাকেন এই অভিনেত্রী। দীর্ঘ অভিনয় জীবনে ঈশিতার বিভিন্ন অভিজ্ঞতা নিয়ে কথা হয় চেঞ্জ টিভি’র সঙ্গে।

একজন প্রতিষ্ঠিত শিল্পী আপনি, কিন্তু কাজ কমিয়ে দেওয়ার পরও এত মানুষের ভালোবাসা পাওয়াটাকে কীভাবে দেখেন ?

ঈশিতা: আমি মনে করি মানুষের ভালোবাসা পাওয়ার মতো বড় আর কিছু নেই। মানুষ আমাকে এতটা ভালোবাসেন, এর চেয়ে বড় প্রাপ্তি কি আর হতে পারে? কাজ কম বা বেশি বড় কথা নয়। ভালো কাজের সংখ্যাটা কতটা সেটাই বড় কথা। দর্শকরা কিন্ত ভালো কাজটাকে মনে রাখেন। এখনো কাজ করতে চাই, কিন্ত ভালো কাজ হতে হবে।

টিভি নাটকে লম্বা জার্নি আপনার, সেই অভিজ্ঞতার কথা জানতে চাই…

ঈশিতা: বিটিভি থেকেই আমার শুরু। এক সময় বিটিভিতে অনেক কাজ করেছি। প্যাকেজ আসার পরও অনেক কাজ করেছি। বিটিভিতে গেলে নস্টালজিক হয়ে পড়ি। বিটিভিকে মিস করি অনেক। বিটিভির সবরকমের সুব্যবস্থার কথা বলতেই হয়। সবকিছু বদলায়। আমরাও বড় হচ্ছি। কাজের পরিধি বেড়েছে। লম্বা জার্নির পেছনে ফিরে তাকালে অনেক কথা মনে পড়ে। কত অভিজ্ঞতা একজীবনে হয়েছে কাজ করতে গিয়ে। এটুকু বলব- শিল্পী জীবন হলো মানুষের ভালোবাসার জীবন। কাজ দিয়ে মানুষের মাঝে বেঁচে থাকা যায়।

দর্শকরা আপনাকে অনেক মিস করেন, তা বিশ্বাস করেন ?

ঈশিতা: অবশ্যই। আমিও দর্শকদের মিস করি। তাদের জন্যই মাঝে মাঝে কাজ করি। এজন্য ভালো স্ক্রিপ্টের অপেক্ষায় থাকি। আসলে জীবনের প্রায়োরিটি তো বদলে যায়। জীবন তো চলমান। আমার দুই সন্তান। তাদের জন্য অনেক সময় বের করতে হয়। সবকিছুর পরও দর্শকদের মিস করার কথা ভেবে আমিও সময় বের করি। আমিও তাদের মিস করি।

গত ঈদে ‘ইতি মা’ এত সুন্দর একটি মানবিক গল্পের নাটকে কাজ করেছেন, যা সব মহলে প্রশংসিত হয়েছে…

ঈশিতা: এক কথায় যদি বলি, তাহলে বলব ‘ইতি মা’ নাটকে কাজ করার অভিজ্ঞতা অনেক ভালো। ভীষণ ভালো অভিজ্ঞতা হয়েছে। পরিচালক আশফাক নিপুনের সঙ্গে আমার প্রথম কাজ এ নাটকটি দিয়ে। নিপুন বিগত বছরগুলোতে ভালো ভালো নাটক উপহার দিয়েছে। তার সঙ্গে কাজ করার ইচ্ছে ছিল। এবার হয়েছে। লকডাউনের আগেই কাজটি করেছি। সব মিলিয়ে সুন্দর অভিজ্ঞতা হয়েছে।

সাধারণ টিভি নাটকে আমরা গল্প সংকট দেখি, সেখানে এই নাটকটির শক্তিশালী গল্প ভালো নাটকের বেলায় কত বড় ভূমিকা রাখবে?

ঈশিতা: আসলে এটা ধার করা কোনো গল্প নয়। এটি চারপাশের পরিচিত গল্প। আমার আপনার জীবনের গল্প। এজন্য কাজটি করে আরও ভালো লেগেছে। একটি নাটকের মূল জায়গা হচ্ছে গল্প। গল্প ভালো হলেই শিল্পীরা ভালো অভিনয় করতে পারেন। সেটা এই নাটকে ছিল।

এখনকার কাজগুলো দেখেন ? কেমন লাগে ?

ঈশিতা: দেখি। গেল ঈদের নাটকের কথা যদি বলি, দশ থেকে বারোটি নাটক আমি দেখেছি। যা ছিল সমৃদ্ধ টিভি নাটক। গল্প প্রধান নাটক ছিল। নাটকের গল্পটা আসল। তারপর পরিচালনা এবং অভিনয়। নাটকের গল্প শক্তিশালী হলে দর্শকরা অবশ্যই দেখবেন। এই ধরণের কাজ বেশি বেশি চাই। তাহলে দর্শক ফিরে আসবে।

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry

LEAVE YOUR COMMENT

Your email address will not be published. Required fields are marked *