fbpx

বাংলাদেশের প্রথম ভিডিও নিউজ পোর্টাল

শনিবার, ১৪ই ডিসেম্বর, ২০১৯; ৩০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬; ১৬ই রবিউস-সানি, ১৪৪১
হোম জাতীয় ‘ডিজিটাল ডিভাইস অ্যান্ড ইনোভেশন এক্সপো’ শুরু হচ্ছে ১৪ অক্টোবর
‘ডিজিটাল ডিভাইস অ্যান্ড ইনোভেশন এক্সপো’ শুরু হচ্ছে ১৪ অক্টোবর

‘ডিজিটাল ডিভাইস অ্যান্ড ইনোভেশন এক্সপো’ শুরু হচ্ছে ১৪ অক্টোবর

5
0

‘ডিজিটাল ডিভাইস অ্যান্ড ইনোভেশন এক্সপো ২০১৯’ শুরু হচ্ছে ১৪ অক্টোবর। আইসিটি শিল্পকে উন্নত স্তরে নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যে বাংলাদেশ সরকারের আইসিটি বিভাগ, বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ, বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি (বিসিএস) এবং স্টার্টআপ বাংলাদেশ একসঙ্গে ‘ডিজিটাল ডিভাইস এবং ইনোভেশন এক্সপো-২০১৯’ শীর্ষক প্রদর্শনীর আয়োজন করতে যাচ্ছে।এক্সপোটি আগামী ১৪-১৬ অক্টোবর, বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি), শের-ই-বাংলা নগর, ঢাকাতে অনুষ্ঠিত হবে।

‘মেইড ইন বাংলাদেশ : কোনো কিছুই অসম্ভব নয়’ এই প্রতিপাদ্য বিষয় নিয়ে তিন দিনব্যাপী এই এক্সপো আইসিটি শিল্পসম্পর্কিত বিভিন্ন পণ্য এবং বিশ্ববাসীদের জন্য আইসিটি পরিষেবা একত্রে করে দেশের সাফল্যের গল্পগুলো প্রদর্শন করবে আইসিটি ইন্ডাস্ট্রির সব ব্যবসায়ী।

স্থানীয় এবং বিদেশিদের মধ্যে বিপুলসংখ্যক বিনিয়োগকারী এক্সপোতে অংশ নেবে বলে আশা করা হচ্ছে, যেখানে তারা স্থানীয় উদ্ভাবনগুলো দেখবে এবং সেটি থেকে অভিজ্ঞতা অর্জন করতে পারে, বিশেষ করে হার্ডওয়্যার পণ্যগুলো খাতটিতে নতুন করে বিনিয়োগ এবং রফতানি, এর মাধ্যমে এই সেক্টরে উভয়ের পথ প্রশস্ত করবে।

ইভেন্টের মধ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশের দশ বছরের সাফল্যগুলো বিভিন্ন সেমিনার এবং ব্রেকআউট সেশনের মাধ্যমে তুলে ধরা হবে।

ওয়ালটন, স্যামসাং, সিম্ফনি, টেলিফোন শিল্প সংস্থা, টেকনো মোবাইল, ভিভো, এলজি, নিটল এবং আমরার মতো দেশের প্রায় সমস্ত বড়ো আইসিটি পণ্য ও পরিষেবা উৎপাদনকারী সংস্থা অংশ এক্সপোতে নেবে।

অংশগ্রহণকারীরা তাদের পরিষেবা এবং মূল সরঞ্জাম উৎপাদন (ওইএম), সিকিউরিটি এবং তত্ত্বাবধানের বিষয়গুলোসহ তাদের এন্টারপ্রাইজ সলিউশন, টেলিকম, ক্লাউড কম্পিউটিং, সরকারি সেবা, গেমিং-সম্পর্কিত আরও বিভিন্ন পণ্য প্রদর্শন করবে।

বাংলাদেশ সরকারের এটুআই ইনোভেশন ল্যাব তাদের প্রযুক্তিভিত্তিক কৃষিক্ষেত্র, কর্মসংস্থান, পরিবেশ, নারীর ক্ষমতায়ন, স্বাস্থ্য, আইন, পর্যটন ইত্যাদি ক্ষেত্রে উদ্যোগগুলো প্রদর্শন করবে। দেশীয় উদ্যোক্তাদের তৈরি পণ্যদ্রব্যসমূহ প্রদর্শনের পাশাপাশি দেশের প্রযুক্তিতে আগ্রহী তরুণদের অংশগ্রহণকে এক্সপো চলাকালে সমানভাবে উত্সাহিত করা হবে।

অ্যাক্টিভেশন প্রোগ্রামগুলো বেশ কয়েকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পরিচালিত হবে, যেখানে শিক্ষার্থীরা তাদের পণ্যগুলো পিচ করার সুযোগ পাবে। অ্যাক্টিভেশন প্রোগ্রামগুলো থেকে নির্বাচিত সেরা ৩০টি উদ্ভাবন এক্সপোতে প্রদর্শিত হবে এবং প্রদর্শনীটি শেষ হওয়ার পরে শীর্ষ ১০ তরুণ উদ্ভাবককে বঙ্গবন্ধু উদ্ভাবনী অনুদান (বিআইজি) দিয়ে ভূষিত করা হবে।

(5)

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry

LEAVE YOUR COMMENT

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।