fbpx

বাংলাদেশের প্রথম ভিডিও নিউজ পোর্টাল

রবিবার, ৫ই এপ্রিল, ২০২০; ২২শে চৈত্র, ১৪২৬; ১১ই শাবান, ১৪৪১
হোম আন্তর্জাতিক মুক্তিযুদ্ধের তথ্য নিয়ে কাজ করছে বৃটেনের নিউ হোপ
মুক্তিযুদ্ধের তথ্য নিয়ে কাজ করছে বৃটেনের নিউ হোপ

মুক্তিযুদ্ধের তথ্য নিয়ে কাজ করছে বৃটেনের নিউ হোপ

7
0

বৃটেনের বার্মিংহামে মুক্তিযুদ্ধের তথ্য নিয়ে কাজ করছে দেশটির বেসরকারি সংস্থা নিউ হোপ। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক তথ্য সংগ্রহ ও প্রচার শীর্ষক গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্পের জন্য নিউ হোপকে অর্থায়ন করছে  ‘গ্লোবাল ন্যাশনাল হেরিটেজ ফান্ড’। সংস্থাটি বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের ইতিহাস এবং ঐতিহ্য সর্ম্পকে তথ্য-উপাত্ত সংগ্র হ, সংরক্ষণ এবং পরিবেশনের ওপর গুরুত্বারোপ করবে।

১৯৭১ সালে সংঘটিত বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ বিশ্ব ইতিহাসের একটি উল্লেখযোগ্য ঘটনা। তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানে বাঙালি জাতীয়তা ও স্বাধীকার আন্দোলনের উত্থানের ফলে একটি বিপ্লব এবং সশস্ত্র সংঘাতের সূত্রপাত হয়েছিল। এই স্মরণীয় যুদ্ধের সাথে বার্মিংহামের একটি অবিচ্ছেদ্য সম্পর্ক রয়েছে। কারণ এই শহরের বাঙালিরা ১৯৬৯ সালে প্রথম পূর্ব পাকিস্তান মুক্তি ফ্রন্ট গঠন করেছিল। বার্মিংহামের, বিশেষত দক্ষিণ এশীয় সম্প্রদায়ের অনেক তরুণ প্রজন্ম এই রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের ইতিহাস জানেনা।

বৃটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ এর সাথে নিউ হোপ গ্লোবাল এর চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ফয়েজ উদ্দিন এমবিই 

এই যুদ্ধের ইতিহাস ও ঐতিহ্যকে ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য যুদ্ধের ডকুমেন্টারি, চারু ও কারুশিল্পের কর্মশালার প্রদর্শনী, চিত্র প্রদর্শনী, মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে আলোচনা, যুদ্ধের গল্প ও সাক্ষাৎকার-ভিত্তিক আলোচনা এবং মুক্তিযুদ্ধের ওপর নাটিকা প্রদর্শন করবে নিউ হোপ।

নিউ হোপ আশা করছে, পাঁচ শাতধীক কম্যুনিটির জনগণ এই প্রকল্পের সুবিধা গ্রহণ করতে পারবে।
এই প্রকল্পটি বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ও ঐতিহ্য চিহ্নিত করা, ব্যাখা করা ও সংঘাতের ঘটনা সম্পর্কে মানুষকে অবগত  করা এবং বৃটেনের বাংলাদেশি ও পাকিস্তানি সম্প্রদায়ের মাঝে সুসম্পর্ক সৃষ্টির কাজ করবে।

এই প্রকল্পের  অধীনে তিনটি পত্রিকা, একটি বই এবং মৌখিক ইতিহাস সাক্ষাৎকারের একটি ডকুমেন্টারিও তৈরী করা হবে যা বার্মিংহামের লাইব্রেরিতে সংরক্ষণ করা হবে।
প্রকল্পের জন্যে অর্থ প্রাপ্তি বিষয়ে নিউ হোপ গ্লোবাল এর চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ফয়েজ উদ্দিন এমবিই বলেছেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতার গর্বিত ইতিহাস রয়েছে যা মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে বাস্তবায়িত হয়েছিল। বার্মিংহামের সম্প্রদায়ের কাছে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ও ঐতিহ্যকে পরিচিত করার লক্ষ্যে এই প্রকল্পটিতে অর্থায়ন করার জন্য আমি ন্যাশনাল হেরিটেজ ফান্ডকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।

(7)

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry

LEAVE YOUR COMMENT

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।