fbpx

বাংলাদেশের প্রথম ভিডিও নিউজ পোর্টাল

শুক্রবার, ৫ই জুন, ২০২০; ২২শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭; ১১ই শাওয়াল, ১৪৪১
হোম সংবাদ ২৪ ঘন্টা দুই মাসে সড়কে গেল সাড়ে ৩শ প্রাণ
দুই মাসে সড়কে গেল সাড়ে ৩শ প্রাণ

দুই মাসে সড়কে গেল সাড়ে ৩শ প্রাণ

0

সড়কে বন্ধ হয়নি  ফিটনেসবিহীন যানবাহনের চলাচল। সুযোগ পেলেই চালকরা বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালানো এবং ওভারটেকিং করছে। আর এসব কারণেই সড়কে এখনও দুর্ঘটনা ও প্রাণহানির ঘটনা ঘটছে। সড়কে দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে আনতে হলে আইনের শাসন কঠোরভাবে প্রয়োগ করতে হবে। সেই সঙ্গে প্রয়োজন সচেতনতামূলক প্রচারণা। নয়তো, সড়ক দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে আনা কোনোভাবেই সম্ভব নয়। এমনটাই মনে করছেন সড়ক ও পরিবহন বিশ্লেষকরা।

এ সংক্রান্ত একটি পরিসংখ্যান প্রকাশ করেছে, দেশের শীর্ষস্থানীয় একটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল । গণমাধ্যমটির নিজস্ব পরিসংখ্যান মতে, ২০১৮ সালের ১ ডিসেম্বর থেকে চলতি বছরের ২৭ জানুয়ারি পর্যন্ত সারাদেশে সড়ক দুর্ঘটনায় মোট ৩৪৫ জন নিহত হয়েছে।

এর মধ্যে ট্রাকের চাপায় ১২৮ জন, বাসের চাপায় ১২২ জন, অটোরিকশার ধাক্কায় ১৮ জন, মোটর সাইকেল দুর্ঘটনায় ৪৪ জন, প্রাইভেটকার দুর্ঘটনায় ২৪ জন এবং দুর্ঘটনার কারণ জানা যায়নি এমন ঘটনায় ৯ জন নিহত হয়েছেন।

বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতির মহাসচিব মোজাম্মেল হক চৌধুরী বলেন, ‘আমাদের দেশে সড়কের সার্বিক অব্যবস্থাপনা থেকে বেরিয়ে আসতে না পারলে দুর্ঘটনা ও প্রাণহানি নিয়ন্ত্রণে আনা কোনোভাবেই সম্ভব নয়। সেই সঙ্গে চালক-পথচারীদের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে। সড়কে আইন না মানার প্রবণতা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে এবং প্রশাসনকেও আইনের কঠোর প্রয়োগ নিশ্চিত করতে হবে।’

তিনি বলেন,‘ কিছুদিন আগে দেশজুড়ে নিরাপদ সড়কের জন্য আন্দোলন হলো।  শিক্ষার্থীরা সবার চোখে আঙুল দিয়ে ভুলগুলো দেখিয়ে দিল। ওই আন্দোলনকে দেশের সবাই সমর্থন করেছে। কিন্তু তারপরও কেউ নিয়ম-কানুন ও আাইন মানছে না। আবারও একই ভুল করছে। তাহলে কী লাভ হলো?’

সম্প্রতি ঘটে যাওয়া সড়ক দুর্ঘটনার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘একদিকে ট্রাফিক শৃঙ্খলা পক্ষ চলছে, অপরদিকে সড়কে নৈরাজ্যও চলছে। তবুও দুর্ঘটনা ও প্রাণহানিও ঘটছে। এতে বোঝা যাচ্ছে, সড়কে আইনের শাসন এখনও প্রতিষ্ঠা হয়নি।’
দুর্ঘটনায় স্বপ্ন ভাঙে অসংখ্য পরিবারের‘ট্রাফিক শৃঙ্খলা পক্ষ মানে আমি বুঝি, সড়কে আনফিট (ফিটনেসবিহীন) গাড়ি চলবে না, স্টপেজ ছাড়া কোনও বাস যাত্রী উঠানো-নামানো করবে না, সড়কে বেপরোয়া গতিতে গাড়ির চলাচল হবে না, সড়কে যাত্রী ও পথচারী হয়রানির শিকার হবে না। কিন্তু এগুলো তো ট্রাফিক শৃঙ্খলা পক্ষে দেখা যাচ্ছে না।’

নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা)-এর চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, ‘ট্রাফিক আইন অমান্যে জরিমানার হার বাড়াতে হবে। উপযুক্ত (গায়ে লাগার মতো) অর্থদণ্ড হলে মানুষ আইন মানবে।

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry

LEAVE YOUR COMMENT

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।