fbpx

বাংলাদেশের প্রথম ভিডিও নিউজ পোর্টাল

মঙ্গলবার, ১৫ই অক্টোবর, ২০১৯; ৩০শে আশ্বিন, ১৪২৬; ১৪ই সফর, ১৪৪১
হোম দর্শক ফোরাম থামছেই না নারী নির্যাতন ও সহিংসতা !
থামছেই না নারী নির্যাতন ও সহিংসতা !

থামছেই না নারী নির্যাতন ও সহিংসতা !

18
0

কোনো ব্যাক্তি বা গোষ্ঠীর উপর যখন অন্য ব্যাক্তি বা গোষ্ঠী হুমকি বা বল প্রয়োগ করে থাকে তাকে নির্যাতন বলে । নারী নির্যাতন বলতে যে কোনো বয়সের নারীকে নিগ্রহ,অত্যাচার ও প্রতিহিংসা চরিতার্থ করা বুঝায়। সার্বজনীন নারী অধিকারের সুপষ্ট লঙ্ঘনমূলক অপরাধ নারী নির্যাতন। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে এটি হলো নারীদেরকে আঘাত করা বা অপব্যবহার,যৌতুকের জন্য মানসিক চাপ,মানসিক নিপীড়ন,যৌন নিপীড়ন,ধর্ষণ,বাল্যবিবাহ বিদেশে পাচার।

সম্প্রতি আমরা বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় নারী নির্যাতনের খবর পেয়ে থাকি। নারীরা যেন সহিংসতার স্বীকার না হন তা নিশ্চিত করার জন্য ধর্মসমূহে বিভিন্ন বিধান বিভিন্ন ব্যবস্থা আছে। অথচ ধর্মের নামে নির্যাতন ও সহিংসতার শিকার হন নারীরা। এর মূলে রয়েছে পুরুষের নারীকে বশীভূত রাখার অসুস্থ মানসিকতা এবং কখনো ধর্মের অপব্যবহার ও অপব্যাখা।

নারীদের প্রতি নির্যাতন ও সহিংসতা দিনে দিনে বেড়েই চলছে। কুমিল্লা সেনানিবাস এলাকায় তনু হত্যা বিচার আজ পর্যন্ত হয় নাই। চলতি বছরের এপ্রিল মাসে ফেনীর সোনাগাজী মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি হত্যা ঘটনায় মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষকসহ জড়িতদের ধরে আইনের আওতা আনা হয়েছে। তারপরও নারী নির্যাতন বেড়ে চলছে।

দু:খজনক হলেও সত্য প্রতিবছর সংহিসতার শিকার হয়ে বহু নারী মৃত্যুবরণ করছেন । কারণ তারা কেউ কাছে বলতে পারে না। তাদেরকে বলতে সুযোগ দেওয়া হচ্ছে না। নির্যাতিত হওয়ার পরও থাকতে হচ্ছে নানামুখী চাপে।

নারী নির্যাতন ভয়াবহ চিত্র । বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুারো (বিবিএস) ১২হাজার ৫৩০ জন নারী নিয়ে একটি জরিপে তাদের উপর শারীরিক নির্যাতন ৬৫ শতাংশ,৩৬ শতাংশ যৌন নির্যাতন,৮২ শতাংশ মানসিক শতাংশ এর তথ্য পেয়েছে । ৫৩ শতাংশ নারী স্বামীর মাধ্যমে নির্যাতনের শিকার হয়েছে।

নারী নির্যাতন ও সহিংসতা রোধে আইনের প্রয়োগ করতে হবে। বিশ্বে নারী অধিকার আদায়ে অনেক সংগঠন কাজ করে যাচ্ছে। যে নারীরা মুখ খুলে কথা বলতে ভয় পায় তাদেরকে সাহস দিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। নারীর প্রতি সংহিংসতা রোধের জন্য আইন ছাড়াও আমাদের প্রয়োজন ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন। দৃষ্টিভঙ্গির মাধ্যমে নারীর প্রতি নির্যাতন ও সহিংসতা প্রতিরোধ করতে হবে।

পরিশেষে বলতে চাই, নির্যাতন ও সহিংসতা বন্ধে নারীকেই এগিয়ে আসতে হবে। নারীদের নিজ অধিকারে আদায় জন্য নিজেদের কথা বলতে হবে। নারীদের সচেতন হতে হবে প্রকৃত অধিকার প্রসঙ্গে।

লেখক: শিক্ষার্থী, জার্নালিজম অ্যান্ড মিডিয়া স্ট্যাডিজ, মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউর্নিভাসিটি ।

(18)

Like
Like Love Haha Wow Sad Angry

LEAVE YOUR COMMENT

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।